পায়ের গোড়ালি ফাটা দূর করার ঘরোয়া উপায়- ২দিনেই দেখুন চমক

আমাদের অনেকের অনেক রকম সমস্যা রয়েছে, তার মধ্যে কিছু সমস্যা আমাদের খুবি বিবৃতকর পরিস্থিতিতে ফেলে দেয়। সেরকম একটি সমস্যা হচ্ছে পা ফাটা সমস্যা। সেও সমস্যার কারনে অনেক অনেক বড় রকমের সমস্যা হয়ে থাকে। এই সমস্যা একেক জনের একেক রকমের হয়ে থাকে। কারো এই সমস্যা শুধু শীতে হয়ে থাকে, আবার কারো এই সমস্যা শুধু গরমে হয়ে থাকে। payer gorali fata dur korar ghoroya upay

আবার কারো কারো এই সমস্যা সারা বছরি হয়ে থাকে। অনেকে অনেক রকম চেষ্টার পরো এই সমস্যা থেকে মুক্তি পাননি। আশা করা যায় যে আমরা আজকে সে বিষয় নিয়ে আলোচনা করবো তা আমাদের অনেকের জন্যে খুবি উপকারী হবে আশা করা যায়। আসুন তাহলে দেখে নেয়া যাক।

যে সকল কারনে পায়ের গোড়ালি ফাটে

সকল সমস্যা থেকে মুক্তি পাওয়ার জন্যে আমাদেরকে জানতে হবে যে এই সমস্যা হওয়ার কারন কি, তাহলে আমরা সেই সকল সমস্যা থেকে খুব সহজে মুক্তো হতে পারি, আর তা হতে পারে আজীবনের জন্যে। তাই আসুন জেনে নেই পা ফাটার কিছু কারন।

নিয়মিত পা পরিষ্কার না করা

পা ফাটা অনেকের অনেক বেশি পরিমাণ হয়ে থাকে, অনেকের তো এই পা ফেটে রক্ত পর্যন্ত বের হতে থাকে। তাই এই সমস্যাকে ছোট করে দেখার কোন কারন নেই। আমাদের এই সমস্যার হাত থেকে বাঁচতে আমাদের নিয়মিত পা সাবান পানি দিয়ে পরিষ্কার করতে হবে। পায়ের গোড়ালীতে তুলনামূলক বেশি ময়লা জমে তাই মোটা কাপড় দিয়ে ঘষে সেই ময়লা দূর করতে হবে।

ভিটামিনের অভাবে 

শরীরে ভিটামিনের অভাব হলে পা ফাটতে পারে, শরীরে যদি ভিটামিন বি ও ভিটামিন সি এর অভাব দেখে দেয় তাহলে পা ফাটার মতো সমস্যা দেখা দিতে পারে। তাই শরীরের ত্বকের জন্যে ভিটামিন সি ও ভিটামিন বি এবং মিলারেলস খুবি গুরুত্বপূর্ন। তাই যে সকল খাবেরে এই সকল পুষ্টিগুণ পাওয়া যাবে সেই সকল খাবার বেশি করে খাওয়া।

payer gorali fata dur korar ghoroya upay

পায়ের গোড়ালি ফাটা দূর করার ঘরোয়া উপায়

পায়ের গোড়ালি ফাটা দূর করার জন্যে আমরা এখন কিছু ঘরোয়া উপায় জানবো যা মাদের জন্যে খুবি দরকারি। আসুন তাহলে জেনে নেয়া যাক।

নারিকেল তেল

রাতে শোয়ার আগে পা ভালো করে ধুয়ে শুকনা কাপড় দিয়ে মুছে নিতে হবে। তারপর পায়ে ভালো করে নারকেল তেল মাখতে হবে, এবং মোজা পরে ঘুমাতে হবে। তাহলে খুব তাঁরাতারি পা ফাটা দূর হয়ে যাবে।

পেট্রোলিয়াম জেলির ব্যবহার

পা ফাটা দূর করতে পেট্রোলিয়াম জেলির জুরি মেলা ভাড়। পা ফাটা দূর করতে এই জেলি খুবি উপকারী। আপনার পা হালকা গরম পানিতে ২৫- ৩০ মিনিট ভিজিয়ে রেখে দিতে হবে। তারপর পা তুলে শুকনা কাপড় দিয়ে মুছে নিয়ে হবে। তারপর আপনি আপনার পায়ে ভালো করে পেট্রোলিয়াম জেলি মালিশ করে নিতে হবে। এবং এই ভাবে সারা রাত রেখে দিতে হবে। তাহলে আপনি খুব ভালো একটা ফলা ফল পাবেন আশা করি।

মধুর ব্যবহার

আমরা সবাই জানি যে মধু কতো উপকারী একটা উপাদান। এই মধুর মাঝে রয়েছে হাজারো রোগের সেফা, তাই আমরা আমাদের এই পা ফাটা রোগের জন্যেও এই মধু ব্যবহার করতে পারি। পায়ের চামড়া অধিক শক্ত হওয়ার ফলে তা ফেটে যায়, তাই পায়ের চামড়া নরম ও কমল করতে মধু ব্যবহার হয়ে থাকে। পরিমাণ মতো পানির মধ্য আধা কাপ পরমাণ মধু নিয়ে ভালো করে মিশিয়ে নিতে হবে, তারপর সেই পানির মাঝে পা চুবিয়ে রাখতে হবে ২০- ২৫ মিনিট। আর এই ভাবে ১০- ১২ দিন ব্যবহার করলে আপনি চমক দেখতে পাবেন।

শীত থেকে দূরে থাকা

আপনার পা যদি শীত কালে বেশি পরিমাণে ফেটে থাকে তাহলে আপনার পা কে শীতের হাত থেকে বাচাতে হবে। রাতে শোয়ার সময় অবশ্যই মোজা পরে শুতে হবে। আর পা কে কখনই শুষ্ক রাখা যাবে না। পায়ে অবশ্যই কিছু না কিছু মাখতে হবে। তাহলেই পা ফাটা সমস্যা থেকে আপনি দূরে থাকতে পারবেন।

শেষ কথা

প্রিয় পাঠক, আশা করি আমাদের এই পোষ্টি আপনাদের ভালো লাগবে। আসছে শীতে আমাদের অনেকেরই এই পা ফাটা সমস্যা দেখা যায়। আপনি যদি উপরে উল্লেখিত পন্থা গুলো মেনে চলেন তাহলে আপনি এই সমস্যা থেকে মূক্ত হতে পারেন আশা করি। আমাদের পোষ্টি যদি আপনাদের ভালো লেগে থাকে তাহলে আমাদের পাশেই থাকুন, ধন্যবাদ। 

আরো পড়ুন-

রাগ নিয়ন্ত্রণ করার উপায়- রাগ নিয়ন্ত্রণ করার ১০ টি সেরা উপায়

নিজেকে পরিবর্তন করার উপায়- জীবনকে সুন্দর করবেন যে ভাবে

খারাপ থেকে ভালো হওয়ার উপায়- আলোকিত মানুষ হওয়ার উপায়

ইতালি ভিসা খরচ – চার লাখ লোক নেবে ইতালি

ক্ষুদ্র ব্যবসার তালিকা – ১০ টি লাভজনক ব্যবসার আইডিয়া

ছোট বোনের বিয়ে নিয়ে স্ট্যাটাস, ক্যাপশন ও কবিতা

বেইমান মানুষ নিয়ে উক্তি, স্ট্যাটাস, ক্যাপশন ও কবিতা

কৃষি নিয়ে স্ট্যাটাস, ক্যপশন, উক্তি ও কবিতা

ছেলের প্রতি বাবার ভালোবাসার উক্তি, স্ট্যাটাস ও বাবার উপদেশ

Leave a Comment