কষ্ট নিয়ে ইসলামিক উক্তি, বণী, ক্যাপশন ও হাদিস

কষ্ট হচ্ছে আমাদের নিত্য দিনের সঙ্গী, আমরা আমাদের সকল সুখ অনুভূত করতে পারি তার কারন হচ্ছে কষ্ট, কষ্ট যদি না থাকতো তাহলে আমরা সুখের মর্ম বুঝতে পারতেম না। তাই কষ্ট নিয়ে অনেক কিছুই বলা যায়। কষ্ট নিয়ে ইসলামে কি বলা হয়েছে আমরা আজকের আর্টিকেলে তাই দেখবো। কষ্ট সব সময় খারাপ কিছু বয়ে আনে না। কষ্ট কিছু সময় ভাল কিছু বয়ে আনে। আসুন তাহলে দেখে নেই। Kosto niye islamic ukti, bani, caption o hadis

আমরা অনেক সময় অনেক রকম কষ্ট পেয়ে থাকি, অনেকে আমাদের মনে অনেক রকম কষ্ট দিয়ে থাকে। আমরা তাদের উপর অনেক রাগ হই বা তাদেরকে গালাগালি করে থাকি, ইসলামে তা কতটুকু সঠিক আমরা তা দেখবো। আসুন তাহলে কষ্ট নিয়ে কিছু উক্তি দেখে নেই।

কষ্ট নিয়ে ইসলামিক উক্তি

ইসলাম হচ্ছে সর্বচ্চো জীবন ব্যবস্থা, ইসলামে রয়েছে মানবতার কল্যান। ইসলামের বাহিরে গিয়ে কখনও শান্তি আশা করা যায় না। আমরা আমাদের সকল কাজ কর্ম ও জীবন ব্যবস্থা ইসলামের মধ্যে থেকে করার চিন্তা করবো। তবে আসুন দেখে নেয়া যাক কষ্ট নিয়ে কিছু ইসলামি উক্তি।

  • ‘’যদি তুমি কাহারো হৃদয়কে জয় করিতে চাও, তবে প্রথমে অন্তরে ভালোবাসার বীজ রোপণ করো,  আর জদি তুমি জান্নাত পেতে চাও তাহলে অন্যের পথে কাটা বিছানো ছেড়ে দাও’’।– মাওলানা জালাল উদ্দিন রুমি। 
  • যে তোমাকে সত্যিই হৃদয় দিয়ে ভালবাসবে, সে তোমাকে সব রকম বন্ধন থেকে মুক্ত রাখবে। —  মাওলানা জালাল উদ্দিন রুমি। 
  • মানুষের মনে কখনও কষ্ট দিওনা, কাউকে কষ্ট দিয়ে কোন কিছু অর্জন করার থেকে না করা উত্তম।  –  সংগ্রহীত।
  • দুনিয়াতে কষ্ট করলে আখিরাতে রয়েছে তার জন্যে অনাবিল শান্তি। 
  • মুমিনের জন্যে দুনিয়া হচ্ছে জেলখানা, আর বেইমানের জন্যে হচ্ছে শান্তির জায়গা।
  • যত কষ্টই হোক না কেন ধর্য ধরতে হবে, কারন মুমিনের জন্যে ধর্য হচ্ছে এক প্রকার পরীক্ষা।
  • আল্লাহ তা’আলা নিশ্চয়ই তোমাদের আকৃতি ও বিশাল এই ধন-সম্পদের দিকে তাকাবেন না বরং তিনি তোমাদের অন্তর এবং আমলের দিকেই তাকাবেন। (মুসলিম শরীফ ২৫৬৪)
  • কষ্ট কখন মনের মধ্যে জমা করে রাখা উচিত নয়, কারন কষ্ট মনে জমা করে রাখলে নিজের জীবন কঠিন হয়ে যায়।

Duniya hocche muminer jone jelkhana

কষ্ট নিয়ে ইসলামিক ক্যাপশন

কষ্ট নিয়ে আমরা এখন জানবো কিছু ইসলামিক ক্যাপশন, আমরা মুসলিমরা সব সময় সকল কাজ ইসলাম অনুযায়ী করার চেষ্টা করবো। আমরা সব সময় খেয়াল রাখবো যেন আমাদের ধারা কেউ কখন কষ্ট না পায়। আমাদের উচিত কেউ কষ্টে পড়লে তাকে সাহায্য করা। কারন সকল মুমিন ভাই ভাই। তাহলে আসুন ইসলামিক কিছু ক্যাপশন দেখে নেই।

  • মুমিন কখনও কষ্ট দেখে ভয় পায়না, কারন সকল মুমিন জাহান্নামকে ভয় করে, আর জান্নাতে যাওয়ার আশা রাখেন।
  • ইসলাম হচ্ছে শান্তির ধর্ম, এখানে কেউ কাউকে ছোট করার কোন রকম জায়গা নেই। তাই সবাই সকল কষ্ট ভুলে মিলে মিশে বাস করতে হবে।
  • আমাদের কেউ যদি কষ্ট দিয়ে থাকেন বা আমরা যদি কারো ব্যবহারে কোন রকম কষ্ট পেয়ে থাকি তাহলে আমরা সম্ভব হলে তাকে ক্ষমা করে দেবো। কারন ক্ষমা হচ্ছে মহৎ গুণ।
  • আমরা যদি একজন অপর জনকে ক্ষমা করি, তাহলে মহান আল্লাহ্‌ তালা আমাদেরকে ক্ষমা করে দেবেন ইনশাআল্লাহ্‌।
  • ফরজ ইবাদাতের পরে সব থেকে ভাল কাজ হচ্ছে মানুষের সাথে ভাল ব্যবহার করা। তাই মানুষকে কষ্ট দেয়া হচ্ছে খুব কঠিন গুনাহ।
  • আমরা যদি কাউকে কষ্ট দিয়ে থাকি বা কারো হক নষ্ট করে থাকি তাহলে কেয়ামতের দিন আল্লাহ্‌ তালা আমাদেরকে মাফ করবেন না। আমাদেরকে যাকে কষ্ট দিয়েছি তার কাছে থেকেই মাফ নিতে হবে। তাহলেই আল্লাহ্‌ পাক আমাদেরকে মাফ করবেন।

dukko koro na, tumi za kichu hariyeso ta fire pabe onnovabe

কষ্ট নিয়ে হাদিস

আমাদের প্রিয় নবী (সাঃ) কখনও কোন দিন কাউকে কষ্ট দেননি। তিনি সব সময় সবার সাথে উত্তম ব্যবহার করেছেন। তিনি তার শত্রুদের সাথেউ খুব ভাল ব্যবহার করেছেন। আমরা তার উম্মত হয়ে আমাদের উচিত তার মত সুন্দর চরিত্রের হতে চেষ্টা করা। আমাদের উচিত হচ্ছে কখনও কাউকে কষ্ট না দেয়া। যদি কখনও আমাদের ধারা কেউ কষ্ট পেয়ে যান তাহলে সাথে সাথেই তার কাছে থেকে মাফ চেয়ে নেয়া।

আসুন আমরা এখন কষ্ট নিয়ে প্রিয় নবী (সাঃ) এর কিছু হাদিস দেখে নেই।

  • রাসূল (সা.) বলেছেন, ‘তোমাদের মধ্যে যার আচার-ব্যবহার সুন্দর, সে আমার সবচেয়ে বেশি প্রিয় এবং আমার সবচেয়ে কাছে থাকবে।’ (সুনানে তিরমিজি)। তিনি আরও বলেন, ‘ভালো কথা সদকাস্বরূপ’। (সুনানে বায়হাকি)
  • ৫৫৪৫। আবূল ওয়ালীদ (রহঃ) … আবদুল্লাহ (ইবনু মাসউদ) (রাঃ) থেকে বর্ণিত। তিনি বলেন, আমি নবী সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম কে জিজ্ঞাসা করলাম আল্লাহর নিকট কোন আমল সবচেয়ে বেশী পছন্দনীয়? তিনি বললেনঃ সময় মত সালাত (নামায/নামাজ) আদায় করা। (আবদুল্লাহ) জিজ্ঞাসা করলেনঃ তারপর কোনটি? তিনি বললেনঃ পিতা মাতার সঙ্গে উত্তম ব্যবহার করা। আবদুল্লাহ জিজ্ঞাসা করলেনঃ তারপর কোনটি? তিনি বললেনঃ আল্লাহর রাস্তায় জিহাদ করা। আবদুল্লাহ বলেনঃ নবী সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম এগুলো সম্পর্কে আমাকে বলেছেন। আমি যদি তাকে আরও বেশী প্রশ্ন করতাম, তিনি আমাকে অধিক জানাতেন।
  • আল্লাহ তা’আলা নিশ্চয়ই তোমাদের আকৃতি ও বিশাল এই ধন-সম্পদের দিকে তাকাবেন না বরং তিনি তোমাদের অন্তর এবং আমলের দিকেই তাকাবেন। (মুসলিম শরীফ ২৫৬৪)

শেষ কথা

প্রিয় পাঠক, আজকে আমরা আপনাদের মাঝে তুলে ধরেছি ইসলামের আলোকে কষ্ট নিয়ে কিছু কথা। আশা করি আমাদের এই পোষ্টি আপনাদের ভাল লাগবে। আপনাদের সকল মতামত ও পরামর্শ আমাদেরকে কমেন্ট করে যানাতে ভুলবেন আশা করি। এরকম আরো পোষ্ট পেতে আমাদের সাথেই থাকুন, ধন্যবাদ।

আরো পড়ুন-

মন ভাঙ্গা নিয়ে উক্তি, বাণী, স্ট্যাটাস, ছন্দ ও কবিতা

কদম ফুল নিয়ে স্ট্যাটাস, ক্যাপশন, বাণী, উক্তি ও কবিতা

বন্ধুর মন ভালো করার মেসেজ – বন্ধুর মন ভাল করে ফেলুন মুহুর্তেই

সিঙ্গাপুরে কোন কাজের চাহিদা বেশি – সিঙ্গাপুর যেতে যা জানা দরকার

অনলাইন থেকে আনলিমিটেড টাকা ইনকাম করার সহজ উপায় বাংলাদেশে

একা থাকার স্ট্যাটাস, উক্তি, বাণী ও কবিতা

ছেলেদের মুখে ব্রণ দূর করার উপায় – ব্রণ নিয়ে চিন্তা আর নয়

বাড়তি আয় করার উপায় – যে ভাবে আপনিও হতে পারেন স্বাবলম্বী

কালো জিরার উপকারিতা – পরিবর্তন দেখুন আপনি নিজেই

বউ শাশুড়ি নিয়ে উক্তি, স্ট্যাটাস ও কবিতা

Leave a Comment