ডেঙ্গু রোগের লক্ষণ ও প্রতিকার-যা জানা খুবি জরুরী

বর্তমান সময়ে আমাদের দেশসহ বিশ্বের প্রায় সকল দেশেই ডেঙ্গু জ্বরের প্রভাব অনেক বড় মহামারিতে রূপ নিয়েছে। বিগত দিনে ডেঙ্গু জ্বরের কারনে বেশি মানুষ মারা না গেলেও এই বছর এই ডেঙ্গুর কারনে মানুষ মৃত্যুর হার অনেক বেশি। এই বছর আমাদের দেশে প্রায় ১ হাজার ৬৯৭ জন মানুষ মারা গিয়েছে। তাই আমাদের সকল কেই এই ব্যাপারে নিরলস ভাবে কাজ করতে হবে। Dengu Roger lokkhon o protikar

কারন এই সমস্যা কখনই কোন দেশের সরকার একা কন্ট্রোল করতে পারবে না। আমাদের সবাইকেই এই ব্যাপারে এগিয়ে আসতে হবে। আসুন এখন আমরা ডেঙ্গু জ্বর নিয়ে কিছু গুরুত্য পুর্ন তথ্য জানি যা আমাদের সবার অনেক কাজে আসবে। কারন সতর্ক থাকলে ক্ষতির সংথা অনেক আংশে কমিয়ে আনা সম্ভব।

ডেঙ্গু জ্বর হওয়ার কারণ:

ডেঙ্গু জ্বর এডিস ইজিপ্টি এবং এডিস অ্যালবোপিক্টাস নামক মশার কামড়ের মাধ্যমে ছড়ায়। এই মশারা দিনের বেলায়, বিশেষ করে ভোরবেলা এবং সূর্যাস্তের সময় কামড়ায়

ডেঙ্গু ভাইরাসের চারটি ধরন (serotype) আছে: DENV-1, DENV-2, DENV-3, এবং DENV-4। একবার ডেঙ্গু হলে শরীরে সেই ধরনের ভাইরাসের প্রতিরোধ ক্ষমতা তৈরি হয়। কিন্তু অন্য তিনটি ধরনের ভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ার ঝুঁকি থাকে।

ডেঙ্গু জ্বরের লক্ষণ:

ডেঙ্গু জ্বর অনেক মারাত্বক একটি অসুখ। এই জ্বর যদি আপনার বা আপনার পরিচিত কারো হয়ে থাকে তাহলে আপনাকে অনেক দ্রুত চিকিৎসকের শরণাপন্ন হতে হবে। এবং খুব দ্রুত চিকিৎসা শুরু করতে হবে। তাই এই জ্বরটি আসকেই ডেঙ্গু কিনা তা যদি আপনার জানা থাকে তাহলে এই জ্বর নিরুপন করা পনার জন্য খুবি সহজ হয়ে যাবে। এবং রোগি খুবি তাড়াতাড়ি চিকিৎসা পাবে। তাই আসুন ডেঙ্গু জ্বরের লক্ষণ গুলো জেনে নেই।

  • উচ্চ জ্বর: ১০৪° ফারেনহাইট পর্যন্ত জ্বর হতে পারে।
  • মাথাব্যথা: বিশেষ করে চোখের পেছনে ব্যথা।
  • মাংসপেশি ও হাড়ে ব্যথা: “হাড়ভাঙা জ্বর” নামকরণের কারণ।
  • চোখের পেছনে ব্যথা: তীব্র ব্যথা হতে পারে।
  • ত্বকে ফুসকুড়ি: জ্বর নেমে যাওয়ার পর বের হতে পারে।
  • অন্যান্য লক্ষণ: বমি, বমি বমি ভাব, ক্লান্তি, পেটে ব্যথা, ডায়রিয়া, রক্তক্ষরণ (নাক, মাড়ি, মল) ইত্যাদি।

Dengu Roger lokkhon o protikar

প্রতিরোধ:

ডেঙ্গু জ্বরের হাত থেকে রক্ষা পেতে আমাদের সর্বচ্চো সতর্ক থাকতে হবে। আর সেই সতর্কতার অংশ হিসেবে কিছু প্রতিরোধ ব্যবস্থা গ্রহন করতে পারি, আর এর মাধ্যমে আমরা ডেঙ্গু নামক মরন ব্যথি থেকে মুক্তি পেতে পারি। আসুন তাহলে দেখে নেই কিছু প্রতিরোধ ব্যবস্থা।

  • মশা প্রতিরোধ: মশার কামড় থেকে নিজেকে রক্ষা করাই ডেঙ্গু প্রতিরোধের মূল উপায়।
  • পরিবেশ পরিষ্কার: মশার ডিম পাড়ার উপযোগী পরিবেশ তৈরি না করা।
  • পোকামাকড় প্রতিরোধক ব্যবহার: মশা তাড়ানোর ক্রিম, স্প্রে, লোশন ব্যবহার।

চিকিৎসা:

  • সঠিক রোগ নির্ণয়: ডাক্তারের পরামর্শ অনুযায়ী রক্ত পরীক্ষা করে ডেঙ্গু নিশ্চিত করা।
  • বিশ্রাম: পর্যাপ্ত বিশ্রাম গ্রহণ করা।
  • তরল পান: প্রচুর পরিমাণে তরল পান করা, যেমন: পানি, ORS, স্যুপ, ফলের রস ইত্যাদি।
  • জ্বর নিয়ন্ত্রণ: প্যারাসিটামল জ্বর কমাতে ব্যবহার করা।
  • হাসপাতালে ভর্তি: ডাক্তারের পরামর্শ অনুযায়ী জটিলতা দেখা দিলে হাসপাতালে ভর্তি হওয়া।

সতর্কতা:

  • অ্যাসপিরিন ও আইবুপ্রোফেন: ডেঙ্গু জ্বরে এই ওষুধ ব্যবহার না করা।expand_more
  • রক্ত পরীক্ষা: ডাক্তারের পরামর্শ অনুযায়ী নিয়মিত রক্ত পরীক্ষা করা।
  • প্লেটলেট কাউন্ট: প্লেটলেট কাউন্ট কমে গেলে সতর্ক থাকা।
  • ডেঙ্গু শক সিনড্রোম: ডেঙ্গুর জটিলতা, প্রাথমিক লক্ষণ দেখা দিলে দ্রুত চিকিৎসা নেওয়া।

কিছু গুরুত্বপূর্ণ তথ্য:

  • ডেঙ্গু ভাইরাসজনিত রোগ, কোনো ওষুধ নেই।
  • ডেঙ্গু জ্বর সাধারণত ৭-১০ দিন স্থায়ী হয়।
  • ডেঙ্গু জ্বরে সঠিক চিকিৎসা ও যত্ন নিলে সুস্থ হওয়া সম্ভব।
  • ডেঙ্গু জ্বর মারাত্মক হতে পারে, তাই সতর্ক থাকা জরুরি।

শেষ কথা

প্রিয় পাঠক, আশা করি এই তথ্যগুলো আপনার জন্য সহায়ক হবে। এরকম আরো সব সহায়ক পোস্ট পেতে আমাদের সাথেই থাকুন, ধন্যবাদ। 

আরো পড়ুন-

মাতৃভাষা নিয়ে উক্তি, স্ট্যাটাস, ক্যাপশন ও কবিতা

২১ শে ফেব্রুয়ারি সংক্ষিপ্ত বক্তব্য,সহজ এবং সুন্দর বক্তব্য

আখরোটের উপকারিতা-আখরোটে রয়েছে বিশেষ গুণ

শীতের সকাল নিয়ে ক্যাপশন,স্ট্যাটাস, উক্তি ও কবিতা

ব্যবসা নিয়ে ইসলামিক উক্তি, স্ট্যাটাস, বাণী ও কবিতা

বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স টিকেট চেক- সর্বশেষ আপডেট

কলিজার বন্ধু নিয়ে স্ট্যাটাস, উক্তি, বাণী কবিতা

ক্ষণস্থায়ী জীবন নিয়ে স্ট্যাটাস, উক্তি, বাণী ও কবিতা

বন্ধুত্বের সম্পর্ক কেমন হওয়া উচিত- বন্ধুত্ব হবে আরো মজবুত

Leave a Comment